Monday, 29 May 2017

চট্টগ্রাম,বাংলাদেশ।কর্নেল বশিরুল ইসলাম যিনি বিজিবি  এর চট্টগ্রাম সেক্টর কমান্ডার  তিনি গত ৩১ মার্চ দুই সীমান্তরক্ষী বাহিনীর বৈঠকে অভিযোগ
করেন যে বার্মা-বাংলাদেশ সীমান্তে তারা ইয়াবা ফ্যাক্টরি চালাচ্ছে।

"বিজিবি এর কর্মকর্তারা তাদেরকে বলেন যাতে অতি শীগ্রই নাসাকা এসব ফ্যক্টরি বন্ধ করে যাতে বাংলাদেশে মাদক না আসে।
বার্মা বাংলাদেশ সীমান্তে তিনটি ইয়াবা ফ্যাক্টরি আছে যেখানে ইয়াবা উৎপন্ন করে তা বাংলাদেশে পাচার করা হয়।
"আমরা দাবি করেছি যাতে বাংলাদেশে ইয়াবা পাচার না হয় এবং এই সব কারখানা বন্ধ করে দেওয়া হয়।
কর্নেল মোহাম্মদ বশিরুল ইসলাম ১৫ সদস্যের বিজিবি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন অন্যদিকে নাসাকা ডিরেক্টর কর্নেল উ অং গি ১৭ সদস্যের
নাসাকা দলের নেতৃত্ব দেন।
এছাড়া বিজিবি প্রতিনিধিদল নাসাকার সামনে ইয়াবা আটকের একটি চিত্র তুলে ধরে এবং গত ৫ মাসে আটক মাদক দ্রব্যের  তালিকা তুলে ধরেন
ও ইয়াবা ফ্যাক্টরির অবস্থান বর্ননা করেন।
তবে নাসাকা প্রতিনিধিদল বলে যে  তাদের এব্যাপারে কোন খবর নেই ইয়াবা যে এইভাবে পাচার হচ্ছে এবং তারা এই ব্যাপারে তদন্ত করে অতিস্বত্তর বিজিবিকে
অভিহিত করবে।
নাসাকা কর্মকর্তা জানান আমরা অতিস্বত্তর ব্যবস্থা নিব এই ব্যাপারে।
কর্নেল বশিরুল পরে প্রেস ব্রিফিং এ জানান,বিজিবি নাসাকার সাথে অনেক বিষয়ে একমত হয়েছে যার মধ্যে ইয়াবা ফ্যাক্টরি বন্ধ,মাদক পাচার এ বাধা দেওয়া ও রোহিঙাদের
অনুপ্রবেশ বন্ধ করা এছাড়া উভয়দেশে কারাগারে বন্দী বিনিময়।